কুরআন বিতরণ ও আলেমদের সম্মানে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ মাওলানা আব্দুস সোবহান বলেছেন, নব্বই ভাগ মুসলমানের দেশে কুরআনের আইন ছাড়া অন্য কোন সংবিধান মেনে নেয়া হবে না। বর্তমানে মসজিদ ও অলি আউলিয়ার দেশে রবীন্দ্রনাথ ও লালনচর্চা করে দেশকে ধ্বংসের দিকে নেয়া হচ্ছে। দেশের মানুষকে আজ কুরআন থেকে দূরে সরিয়ে  মূর্তিপূজা আর শিরক করার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। দেশের এই অবস্থায় কুরআনের রাজ প্রতিষ্ঠার জন্য যুবসমাজকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।
তিনি সম্প্রতি রাজধানীর লা লুনা রেস্টুরেন্টে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির আয়োজিত কুরআন বিতরণ ও বিশিষ্ট আলেমদের সম্মানে ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।  ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ডা. মো: ফখরুদ্দিন মানিকের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি জেনারেল মো: দেলাওয়ার হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মাসিক মদীনার সম্পাদক ও সম্মিলিত ওলামা মাসায়েখ পরিষদের সভাপতি মাওলানা মুহিউদ্দীন খান, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির মহাসচিব মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ঢাকা মহানগরীর আমীর মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান,  খেলাফত মজলিশের নায়েবে আমীর মাওলানা মজিবুর রহমান কেশওয়ারী, তামীরুল মিল্লাত কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা যাইনুল আবেদীন, সম্মিলিত ওলামা মাশায়েখ পরিষদের মহাসচিব মাওলানা মহিউদ্দিন রব্বানী, শর্ষীনার পীরজাদা মাওলানা শাহ আরিফ বিল্লাহ সিদ্দিকী, টেকেরহাটের পীর সাহেব মাওলানা কামরুল ইসলাম সাঈদ আনসারী, সম্মিলিত ওলামা মাশায়েখ পরিষদের ঢাকা মহানগরী সভাপতি মাওলানা আহমদ আলী কাশেমী, দারুল আরাবিয়া বাংলাদেশের পরিচালক মাওলানা আব্দুর রশীদ মাদানী প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক আব্দুল জব্বার, সাহিত্য সম্পাদক মো. আতিকুর রহমান, এইচআরডি সম্পাদক মনির উদ্দিন মণি, প্রচার সম্পাদক আবু সালেহ মো. ইয়াহইয়া, পাঠাগার সম্পাদক নূরুল ইসলাম আকন্দ, শিক্ষাকার্যক্রম সম্পাদক হাফেজ শাহীনুর রহমানসহ বিশ্ববিদ্যালয় ও মহানগর নেতৃবৃন্দ।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাওলানা মুহিউদ্দীন খান বলেন, বাংলাদেশের শাসনব্যবস্থায় আজ কুরআন উপেক্ষিত। কুরআন অনুযায়ী সংবিধান না থাকায় বাংলাদেশ আজ ছিন্ন ভিন্ন হয়ে যাচ্ছে। প্রতিবেশী দেশের প্রভাবে আমাদের আজ টুপি ও দাড়ি রাখা দুরূহ হয়ে পড়েছে। বর্তমান সরকার কুরআনের বড় খাদেম মাওলানা সাঈদীর মত অসংখ্য আলেম ওলামাদেরকে অন্যায়ভাবে কারাবন্দী করে  রেখেছে।
সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ডা. মো. ফখরুদ্দিন মানিক বলেন, ছাত্রশিবির বাংলাদেশের সবুজ ভূখণ্ডে আল-কুরআনের সমাজ প্রতিষ্ঠার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। কুরআন ও হাদীসের আলোকে নিজের জীবনকে গড়ে তোলার জন্য ছাত্রসমাজকে প্রতিনিয়ত আহবান জানাচ্ছে।উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ও মেডিক্যালের প্রায় দুই শতাধিক মেধাবী ছাত্রের মাঝে কুরআন বিতরণ করা হয়।

SHARE

Leave a Reply