দেখেছি মায়ের কান্না

আবু সালেহ মো: ইয়াহইয়া

আমি দেখেছি কত মায়ের কান্না, বাবার আহাজারি
ব্যথিত হৃদয়ে মলিন বদনে আকাশ হয়েছে ভারী।

আমি দেখেছি কত মায়ের বুক যে হয়েছে ফাঁকা
সজল নয়নে আকাশ পানে নির্বাক চেয়ে থাকা।
আমি দেখেছি বোনের কপোল ভিজে ঝরছে অশ্রুধারা
ব্যাকুল হয়ে ভাইয়ের খোঁজে ফিরছে সর্বহারা।

আমি দেখেছি কত বাগানের ফুল অকাল ঝরে পড়া
বিকশিত হয়ে সুরভি ছড়ানো হলো না আর সারা।
আমি দেখেছি কত পাখির ছানার ভেঙেছে ডানা
পাখা মেলে তাই বিশ্বটাকে হলো না তার জানা।

আমি দেখেছি ওই যে শত তরুণের নিলাভ চেহারা
লোহার শিকলে পড়েছে বাঁধা যে অযুত স্বপ্নেরা।
আমি দেখেছি কত ভাই আমার হয়েছে চোখ হারা
হাত-পা হারিয়ে চলছে তবু গৌরবে বুক ভরা।

আমি শুনেছি কত মজলুমানের আকুল ফরিয়াদ
শোষণে পীড়নে বিষাদে তার করুণ আর্তনাদ।
আমি শুনেছি বাতাসের বুকে ব্যথার গুঞ্জরণ
সত্যের আলো নিভিয়ে দিতে মিথ্যার আস্ফালন।

আমি জেনেছি কভু বিফলে যাবে না এই আয়োজন
নীরবে নীশিতে প্রভুর চরণে অশ্রু বিসর্জন।
আমি জেনেছি লাখো তরুণ আবার করছে নতুন পণ
বিজয় কেতন উড়াবার তরে লড়বে আজীবন।

(২৭ মে ২০১৩, কাশিমপুর কারাগার, পার্ট-২)

SHARE

Leave a Reply