নিতল সমুদ্রে অবগাহন -মোশাররফ হোসেন খান

স্তব্ধতার প্রহর ভেঙে অকস্মাৎ জেগে উঠি…
এ পৃথিবী কোথায় যাচ্ছে, কোথায়?
এ মহাবিশ্ব কোথায় যাচ্ছে, কোথায়?

যেখানে সবুজাভ হরিতের ক্ষেত ছিল,
সেটা এখন দূরপাল্লার রাশভারী বিমান বন্দর!
যেখানে চিত্রল হরিণের অভয় আশ্রয় ছিল,
সেটা এখন হায়েনার ঘাঁটি!

ক্রোধ ও ঘৃণার অবিরাম ঘর্ষণে
উধাও নিলাদ্র-নীলাভ!

প্রশান্তির পাখিরা আজ কোথায় হারিয়ে গেল?

সবিস্ময়ে তাকিয়ে থাকি ঊর্ধ্বে, সীমাহীন-সীমানায়!
ভাবি … আজ যদি কবুতরের একটি ডানাও স্পর্শ করতে পারতাম!

উন্মাতাল বাতাসের গতিঝড়ে কাশফুলের মতো
কেবলই উড়ছে মাথার কেশরাশি।
আমি দিশাহীন এক অভিযাত্রী,
হাঁটছি তো হাঁটছি জনম অবধি
কেবল মানুষের জন্য, মানুষের খোঁজে!….

পথের কি কোনো শেষ আছে?

পরিশ্রান্ত দৃষ্টিতে একবার সমুদ্রের দিকে তাকিয়েই
চমকে উঠলাম,
কে ডাকে, কে ডাকে নিতল সমুদ্র থেকে?
সমুদ্রের ভেতর থেকে বাড়িয়ে দেয়া
কমনীয় হাত দু’টি কার?
শহীদ মালেক নাকি?
বিনত বিস্ময়ে আমি ভাবতে থাকি বারবার!!

৩.৭.২০১৮

SHARE

Leave a Reply