শহীদ আহমদ যায়েদ স্মরণে

নিজাম উদ্দিন মাহমুদ

ফুটফুটে চেহারা তার অমায়িক আচরণ
মিষ্টি সুরে গান আর সুন্দর একটা মন,
সেই সুবাদে যায়েদ হয়ে ওঠে
সকলের প্রিয়, সবার আদরের ধন।

হঠাৎ যখন লক্ষ্মীপুর
হিংস্রতায় ভরে যায়,
মানবতা বারবার,
হায়েনার কাছে হেরে যায়।

বারুদের গন্ধে নাক ডিবে আসে
বোমার আওয়াজে কান,
রক্ত দেখে চোখ বুজে আসে
কেঁদে ওঠে প্রাণ।

রক্তপিচ্ছিল পথে পালাবে কোথায়
চুপিসারেও ভীত
কেউ থাকছে চাঁদা দিয়ে
কেউবা হয়ে নত।

লাঞ্ছিত মানবতাকে বাঁচাতে
প্রয়োজন যদি হয়,
রক্ত দেবো, জীবন দেব তবু
মানবো না পরাজয়।

এমন শপথ নিয়ে যায়েদ এগিয়ে যায়
সাহস নিয়ে বুকে,
হয়তো বিজয় নয় শাহাদাত
স্বপ্ন দেখে চোখে।

হায়েনার দল ঘিরেছে তাকে
আঘাত হেনেছে মাথায়,
হাতুড়ির আঘাতে লুটিয়ে পড়ে
কঁকিয়ে উঠে ব্যথায়।

বুকের ওপর লাফিয়ে ওরা
ভেঙে দিয়েছে ঘাড়,
থেঁতলে দিয়েছে সারাটা দেহ
চূর্ণ করেছে হাড়।

রক্ত জোয়ার বয়ে চলেছে
বেরিয়ে গেছে মগজ,
হিংস্রতায় উল্লাস করা
পশুদের কাছেই সহজ।

অবশেষে মিলিত হবার প্রস্তুতি নেয়
প্রিয় মালিকের সাথে,
শাহাদাতের সুধা পান করে
নরপিশাচের হাতে।

যায়েদের সেই স্মৃতি থাকবে
অম্লান চিরকাল,
তারিখটা সতেরই আগস্ট
ঊনিশ’শত নিরানব্বই সাল।

৮ আগস্ট ২০০৪

SHARE

Leave a Reply