স্মৃতিতে আমার বাবা

আফিফা তাজরিমিন পপি

মাঝরাতে ঘুমের মাঝে হঠাৎ আঁতকে উঠি,
বাবা বুঝি ডাকছে আমায় কোলে নিতে তুলি।
মা বলেছে তুমি নাকি আসবে লাল জামা নিয়ে,
সেই আশায় আজো আমি আছি তোমার পথপানে চেয়ে।
দাদু আমায় বলেছিল, তুমি নাকি অনেক পড়ালেখা করছো
তাইতো আমি ধৈর্য ধরে আনমনে,
এখনো বসে আছি পথপানে চেয়ে।

শাশারপুরের অজপাড়া গাঁয়ে শিক্ষার আলো জ্বালাতে,
গেছো তুমি মানুষ হতে রাজাশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে।
আমায় তুমি ভুলেই গেছ, নেই তোমার মনে
ছোট্ট মেয়ে দুষ্টু আফিফা
তোমার পথচেয়ে!

হঠাৎ দেখি আমাদের বাড়িতে অনেক মানুষের ভীড়-
বাকসোটিকে তারা ঘিরে রেখেছে, বলছে শহীদ হয়েছে কেউ!
আমাকে কেউ একজন কোলে করে নিয়ে গেল বাকসের কাছে
আমি তো দেখি, এ যে আমার বাবা!
বাবার হাতে খুঁজছি আমার লাল জামা
কই, বাবার হাত যে খালি!
লাল জামা থাকবে কী করে-
বাবা যে সেদিন শহীদ হয়েছেন মতিহারের সবুজ চত্বরে!

বাবার আদর পাইনি আমি, পাইনি কোনো স্নেহ
মাঝে মধ্যে স্বপ্নে দেখি, বাবা ডেকে বলছে,
আমায় মাফ করেছ, মা?

আজ আমি বড় হয়েছি।
মাকে এখনো দেখি ১৮ নভেম্বর এলে
নিরালায় বসে কাঁদছে, জানি, বাবার স্মৃতি মনে করে।

শহীদের চাঁদরে নিজেকে মুড়িয়ে বাবা হয়েছেন পরবাসী
বাবার স্মৃতি বুকে লালন করে আছি বেঁচে অহর্নিশি।
নামাজ শেষে রবের কাছে করি আরাধনা-
“আল্লাহ! আমার বাবাকে দিও শহীদের বালাখানা…”

কবি : শহীদ আসগর আলীর কন্যা

SHARE

Leave a Reply